চীনে উইঘুর পুরুষরা আটকে ডিটেনশন ক্যাম্পে, রাত্রে মহিলাদের উপর চলছে যৌন নির্যাতনঃ বিশ্ব মানবতা কি ঘুমিয়ে আছে ?

বিশ্ব রাজ্য

নিউজ ডেস্ক এন এ নিউজ বাংলাঃ এক চমকপ্রদ ঘটনার প্রকাশে জানা গেছে যে উইঘুর মুসলিম মহিলাদের যাদের স্বামীদের কারাগারে পাঠানো হয় , আর তাদের ঘরের উপর নজরদারি করে সরকার নিযুক্ত চীনা পুরুষরা। তারা যৌন নির্যাতন চালায় উইঘুর মুসলিম নারীদের উপর।
রেডিও ফ্রি এশিয়া (আরএফএ) গত সপ্তাহে এই বেদনাদায়ক কাহিনীটির প্রতিবেদন করেছে। চীনের কাশগর শহরের এক কমিউনিস্ট পার্টির কর্মকর্তাকে উদ্ধৃত করে বলা হয়েছে, এই আধিকারিকরা, যারা বেশিরভাগই পুরুষ, তারা সাধারণত প্রতিটি উইঘুর বাড়িতে সপ্তাহে ছয় দিন অবধি থাকেন, যার মধ্যে বেশিরভাগ পুরুষ ।
এই অভিযোগ প্রকাশ্যে এলো যখন চীনমুসলিম সংখ্যালঘুদের বিরুদ্ধে বছরের পর বছর ধরে অমানসিক অত্যাচার করে আসছে ,যার মধ্যে কেবল উইঘুরই নয়, কাজাখ এবং অন্যান্য জাতিগোষ্ঠীও রয়েছে।
কিছু মহিলা জানিয়েছেন যে, তারা চীনের মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ প্রদেশ জিনজিয়াংয়ে গর্ভপাত করতে বাধ্য করা হচ্ছে। তারা আরো জানান তাদের আটকের সময় তাদের ইচ্ছার বিরুদ্ধে গর্ভনিরোধক যন্ত্র বসানো হচ্ছে। এমনকি তাদের স্নানাগারে চিত্রগ্রহণ করা থেকে শুরু করে তাদের যৌনাঙ্গে মরিচের পেস্ট দিয়ে ঘষানো পর্যন্ত হচ্ছে। এইভাবে তারা যৌন হেনস্থার শিকার হয়েছেন।
গত দুই বছর ধরে পশ্চিমের চীনের জিনজিয়াংয়ের মুসলিম উইঘুরদের বিরুদ্ধে কমিউনিস্ট পার্টির কঠোরতম অত্যাচার চালাচ্ছে । রাষ্ট্রসংঘের মানবাধিকার সংস্থা কি ঘুমিয়ে আছে ? মানবাধিকার কি লঙ্ঘিত হচ্ছে না? কবে তারা পাবে ন্যায় বিচার, মানুষ হিসেবে বাঁচার অধিকার ।